শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন

ফিরেছে সোনালী আঁশে সুদিনঃ খুশি খোকসার পাটচাষিরা ।

পুলক সরকার / ১২৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:৪০ পূর্বাহ্ন

পুলক সরকারঃ  ফিরেছে সোনালী আঁশে সোনালী দিন। এক সময় সোনালী আঁশ কৃষকের গলার ফাঁস হলেও বর্তমানে এই আঁশ কৃষকের সোনালী স্বপ্ন।কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার বিভিন্ন বাজারে জমে উঠেছে পাট কেনা-বেচা। দামও অনেক বেশী। বাজারে ভালো দাম পেয়ে খুশি পাটচাষিরা।

 

শনিবার (০৪’সেপ্টেম্বর) সরজমিনে খোকসা বাজারের পাটের আড়ৎ ঘুরে দেখা গেছে, ইঞ্জিনচালিত ভটভটি ও ব্যাটারি চালিত ভ্যানে বিভিন্ন এলাকার কৃষকরা বাজারে পাট বিক্রি করতে আসছে। আড়তে প্রতিমণ পাট বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার ৮শত টাকা থেকে ৩ হাজার ১শত টাকা। উপজেলার বিভিন্ন আড়ৎ/বিক্রয় কেন্দ্রগুলো যেন বহু বছর পর প্রাণ ফিরে পেয়েছে।

 

চলতি মৌসুমে পাট চাষের শুরুতে অনাবৃষ্টি দেখা দেয়। পানির অভাব থাকা সত্ত্বেও পাট চাষীরা শ্যালো ও ডিপ টিউবওয়েলের সাহায্যে সেচ দিয়ে জমি চাষ করেছেন। অপরদিকে পাট জাগ দেয়ার সময়ও পর্যাপ্ত পানির অভাব দেখা দেয়। এ কারণে এবার পাট চাষে কৃষকের একটু বাড়তি খরচ হয়। তবে বাড়তি খরচ হলেও পাটের দাম ভালো পাওয়ায় কৃষক ক্ষতি পুষিয়ে লাভের মুখ দেখছে। গতবার পাটের ভাল দাম পাওয়ায় উপজেলার কৃষকরা পাট চাষের দিকে ঝুঁকে পড়েছে।

 

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সূত্রে জানা গেছে, এবছর পাট চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৪ হাজার ৪৪৮ হেক্টর জমি। লক্ষমাত্রা থেকেও প্রায় সাড়ে ৩’শ হেক্টর জমিতে পাটের বেশি আবাদ করেছে স্থানীয় পাটচাষীরা। সবচেয়ে বেশি পাটের আবাদ হয়েছে জানিপুর ইউনিয়নে ৯’শ হেক্টর জমিতে।

 

উপজেলার নয়টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার মোট ২৮ টি কৃষি ব্লকে এবার এই পাটের আবাদ হয়েছে। এদের মধ্যে আমবাড়িয়া ইউনিয়নের ২৫৮ হেক্টর, গোপগ্রাম ইউনিয়নে ১৭০ হেক্টর, জয়ন্তীহাজরা ইউনিয়নে ৪৭০ হেক্টর, শোমসপুর ইউনিয়নের ৩৪০ হেক্টর, খোকসা ইউনিয়নে ১৪০ হেক্টর, পৌরসভায় ৯৫ হেক্টর, শিমুলিয়া ইউনিয়নে ৭৩৫ হেক্টর, ওসমানপুর ইউনিয়নে ৪১০ হেক্টর ও বেতবাড়িয়া ইউনিয়নে ৮৩০ হেক্টর জমিতে পাটের আবাদ হয়েছে।

 

কথা হয় উপজেলার একতারপুর এলাকার পাট চাষী শহিদুল ইসলামের সাথে। খোকসা বাজারে তিনি পাট বিক্রি করতে এসেছেন। তিনি বলেন, আমি আড়তে পাট বিক্রি করতে এসেছি। গত বছর প্রতি মণ পাট ২ হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকা দরে বিক্রি করেছি। এবার বিক্রি করছি প্রতি মণ ২ হাজার ৮শত থেকে ৩ হাজার ১শত টাকা দরে।

 

মোড়াগাছার কৃষক কুদ্দুস আলী বলেন, এ বছর পানির অভাবে পাট জাগ দিতে অনেক সমস্যা হয়েছে। জমি থেকে পাট কেটে প্রায় ৪/৫ মাইল দূরের খালে পাট জাগ দিতে হয়েছে। এতে খরচ অনেক বেশী হলেও বাজার দর বেশী থাকায় আমারা খুশী।

 

উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের মালিগ্রামের কৃষক জমির উদ্দিন বলেন, ২ বিঘা জমিতে পাট চাষ করে ২২ মণ পাট পেয়েছি। আড়ৎ নিয়ে এসে ২ হাজার ৯শত টাকায় বিক্রি করে খুব ভাল লাগছে। এমন দাম থাকলে আগামী বছর ৬/৭ বিঘা জমিতে পাট চাষ করবো ইনশাল্লাহ।

 

তবে এ হাটে আসা অনেক কৃষক অভিযোগ করে বলেন, এক শ্রেণীর অসাধু দালাল ফড়িয়া ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে ওজনে কারচুপীসহ ন্যায্যমূল্য থেকে কৃষক বঞ্চিত হচ্ছে। এব্যাপারে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তাগণ হাট বাজার পর্যবেক্ষণ করার জন্য কৃষকরা আকুল আবেদন রেখেছে।

 

কথা হয় কুমারখালী উপজেলার যদুবয়রা ইউনিয়নের বেড়মানিক গ্রামের পাট ব্যবসায়ী মোঃ বিপুল হোসেনের সাথে। তিনি বলেন, চলতি বছরের এখন পর্যন্ত কৃষকদের কাছ থেকে ২০০ মন পাট ক্রয় করে তা খোকসার বিভিন্ন আড়তে বিক্রি করেছি। তিনি আরো বলেন, কৃষকদের কাছ থেকে প্রতিদিন গড়ে ১০ থেকে ১৫ মণ পাট কিনি।

 

খোকসা হিলালপুরের মোঃ হেলাল উদ্দিন গ্রামে গ্রামে ঘুরে কৃষকদের কাছ থেকে পাট ক্রয় করে তা আড়তে বিক্রি করেন। তিনি বলেন, কৃষকদের কাছ থেকে পাট কিনে আড়তে এনে বিক্রি করলে গাড়ি ভাড়া ও লেবার খরচ বাদ দিয়ে মণপ্রতি ১০০ থেকে ১২০ টাকা লাভ হয়।

 

কথা হয় খোকসা বাজারের পাটের আড়ৎদার  (ব্যবসায়ী) দিলীপ বিশ্বাস ষষ্ঠীর সাথে। তিনি বলেন, বাজারে প্রচুর পরিমাণে পাট আসতে শুরু করছে। প্রতি মণ ২ হাজার ৮শত থেকে ৩ হাজার ১শত টাকা দরে পাট কিনছি। প্রতিদিন গড়ে ৫০০ থেকে ৬০০ মণ পাট ক্রয় করছি। গতবছর চাষিরা পাটের ভালো দাম পাওয়ায় এবার বেশি জমিতে পাট চাষ হয়েছে।

 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সবুজ কুমার সাহা বলেন, উপজেলার পাট চাষীদের আধুনিক উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছিল। অন্যদিকে কৃষকদের বিনামূল্যে পাট বীজ-সার ও প্রণোদনা দেয়ায় এবছর তারা আগ্রহভরে পাটের আবাদ করেছে।

 

তিনি আরো বলেন, পাটজাত পণ্যের বহুমুখী ব্যবহারে পাটের দাম যথাযথ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় স্থানীয় কৃষকরা পাট আবাদে এগিয়ে এসেছে। যার ফলে উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রা থেকেও সাড়ে ৩’শ হেক্টর জমিতে বেশি পাটের আবাদ হয়েছে।



আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

Archives

MonTueWedThuFriSatSun
     12
3456789
24252627282930
31      
  12345
20212223242526
2728293031  
       
2930     
       
    123
45678910
       
  12345
27282930   
       
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930    
       
     12
17181920212223
31      
   1234
19202122232425
2627282930  
       
22232425262728
293031    
       
       
       
      1
30      
   1234
       
282930    
       
  12345
6789101112
13141516171819
2728293031  
       

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect. Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.