শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন

শেষ হলো ঐতিহ্যবাহী জামাই মেলা-আজ বউ মেলা । 

বিকাশ সরকার / ৯২ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ৮:২৮ পূর্বাহ্ন
খবরের ছবি

শেষ হলো ঐতিহ্যবাহী জামাই মেলা-আজ বউ মেলা । 

 

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ

বেশ উৎসবের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে বগুড়া ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলা ( জামাই মেলা )। উল্লেখযোগ্য হচ্ছে এবারের মেলায় ছোটোবড়ো সব ধরনের মাছ আমদানী হলেও সব থেকে বড় ৫৫ কেজি ওজনের বাগার মাছ প্রথমে ৬৫ হাজার টাকা দাম উঠলেও শেষমেষ সেই মাছ কেটে প্রতি কেজি ১২ শ টাকায় বিক্রি হয়েছে। বগুড়া অঞ্চলের সব চেয়ে জনপ্রিয় এবং বড় এ মেলা টি মাছের জন্য বিখ্যাত ।

আজ বৃহস্পতিবার (১১’ফেব্রুয়ারী) এই স্থানে  বউ মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে চলবে দিনভর। পশাপাশি নানা ধরনের আসবাবপত্র কেনা বেচা চলবে। এই  মেলা কে ঘিরে আশ-পাশের কয়েক উপজেলায় এখনো চলছে উৎসবের আমেজ । মেলায় সকাল থেকেই দেশ এবং বিদেশের বাইরে থেকে আসা নানা ধরণের বড় বড় মাছ ছিল মেলার দর্শনার্থীদের জন্য প্রধান আকর্ষন । মেলায় ৫৫ কেজি ওজনের বাঘার মাছসহ  ২০ থেকে ৩০ কেজি ওজনের চিতল, বোয়াল, রুই, কাতলাসহ দেশী বিদেশী অনেক মাছের আমদানী ঘটছিল।

এ ছাড়া মেলার হরেক রকম বাহারী মিঠাই, বড়ই, খেলনা, ঘরের আসবাবপত্র , কসমেটিকস্ ও কাঠ-ষ্টীলের ফার্নিচারের সমারোহ হওয়ায় কেনা বেচাও হয়েছে ভাল বলে জানিয়ে বিক্রেতারা। শেষ পর্যন্ত কেবেচার সঠিক হিসেব না পাওয়া গেলেও প্রতি বছর মেলায় কয়েক কোটি টাকার কেনা বেচা হয় বলে জানান আয়োজকেরা।

মেলায় শুধু মাছই নয় বড় বড় মাছ মিষ্টিও সাজিয়ে বসেছিল বিক্রেতারা।

মেলায় বেচা-কেনার পাশাপাশি বিনোদনের জন্য নাগরদোলা, সার্কাস, বিচিত্রানুষ্ঠান, হুন্ডা খেলা দেখতে দর্শকদের ছিল উপচে পড়া ভীড়।

জানা গেছে, প্রতিবছর সন্ন্যাসী পুজা উপলক্ষে বগুড়া জেলার গাবতলী উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের তরনীহাট সড়কের পোড়াদহ নামক স্থানে এই মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে প্রায় ৪ শত বছর ধরে । বাংলা মাঘ মাসের শেষ বুধবার এ মেলা শুরু হয় এবং প্রথম দিন মাছের মেলা শেষে পরেন দিন বউ মেলার মধ্যদিয়ে শেষ হয়  । সরকারীভাবে এর কোন ক্ষবরদারী না থাকলেও স্থানীয় প্রশাসনের আওতায় এর তদারকী করা হয় । আজকের মেলায় লক্ষাধিক নারী পুরুষের সমাগম ঘটেছিল জানিয়েছেন আয়োজকরা ।

মেলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে এলাকায় আত্নীয় স্বজনদের ব্যাপক ভীড় পড়ে গিয়েছে । এখনো বইছে এ মেলার আমেজ । মজার ব্যাপার অন্যকোন অনুষ্ঠানে মেয়ে জামাইকে দাওয়াত না করলেও এই মেলাতে  জামাই মেয়েকে দাওয়াত করতেই হবে এমন প্রথা অনেক  বছর ধরে এলাকায় চালু রয়েছে ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

Archives

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect. Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.