শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন

কালিগঞ্জে নিজ সন্তানকে হত্যার পর গুমের অভিযোগে পিতা ও সৎ মা আটক!

স্টাফ রিপোর্টার / ৩১৭ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১:১৯ অপরাহ্ন
ছবিতে আটককৃত পিতা ও সৎমা

সাতক্ষীরার  কালিগঞ্জে নিখোঁজের ৬মাস পর বাড়ির পার্শ্ববর্তী বাগানের মাটি খুঁড়ে আরিফুল ইসলাম (১৭) নামের এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার (০৪’সেপ্টেম্বর) বিকালে প্রতিবেশীরা মাটি খুঁড়ে তার লাশ উদ্ধার করে।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চাম্পাফুল গ্রামের ঢালী পাড়া গ্রামে।

হত্যার পর লাশ গুম করার অভিযোগে নিহত কিশোরের পিতা ও সৎমাকে আটক করে পুলিশে সোপার্দ করেছে স্থানীয় জনতা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইলুজ্জামান খান সাইলু এই প্রতিবেদককে জানান, প্রায় ৬ মাস যাবৎ আরিফুল ইসলাম নিখোঁজ ছিল। আরিফুল ইসলামের অবস্থান সম্পর্কে প্রতিবেশীরা তার পিতা ইমান আলী মোড়ল ও তৃতীয় স্ত্রী জোহরা খাতুনকে অনেকবার জিজ্ঞাসা করলেও তারা বিভ্রান্তিমূলক কথাবার্তা বলে আসছিল।

এক পর্যায়ে শুক্রবার এলাকাবাসী ঘটনাটি স্থানীয় ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য কাইয়ুম গাইনকে জানান। ইউপি সদস্য কাইয়ুম গাইন ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ শুক্রবার (০৪’সেপ্টেম্বর) বিকেলে ইমান আলী মোড়ল ও সতমা জোহরা খাতুনের নিকট আরিফুল ইসলাম কোথায় আছে সে সম্পর্কে জানতে চাপ সৃষ্টি করে।

এ সময় চাপের মুখে তারা বলেন, গত চৈত্র মাসের ১/২ তারিখ রাতে তাদের ছেলে বাড়ির পাশের একটি গাছের ডালে দড়ির সাহায্যে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছিল। পরদিন সকালে ঝুলে থাকা লাশ দেখতে পেয়ে তারা গাছ থেকে লাশ নামিয়ে কাউকে কিছু না জানিয়ে বিকেলে বাড়ির পাশে বাগানের মধ্যে কবর দেয়।

আত্মহত্যার ঘটনা কাউকে জানানো হয়নি কেন এই প্রশ্নের জবাবে তারা জানান, পুলিশকে জানালে মৃত ছেলের কিডনি খুলে নিয়ে যাবে। সে জন্য কাউকে না জানিয়ে ইমান আলী একাই বাড়ির পাশে কবর খুঁড়ে তাকে দাফন করে। তাদের রহস্যজনক আচরণ ও বক্তব্যের প্রেক্ষিতে জনতা আরিফুলকে হত্যার পর লাশ গুম করার জন্য পুঁতে রাখার অভিযোগ আনে। এ সময় ইমান আলী ও জোহরা খাতুনকে আটক করে থানায় খবর দেওয়া হয়।

খবর পেয়ে থানার ওসি দেলোয়ার হুসেনের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ প্রসঙ্গে থানার এসআই চিন্ময় মন্ডল রাত সাড়ে ৮টার দিকে জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আটককৃতদের থানায় আনা হচ্ছে। মামলা দায়েরের পর লাশ উত্তোলনের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, আরিফুল ইসলাম ইমান আলী মোড়লের প্রথম স্ত্রীর গর্ভজাত সন্তান। দ্বিতীয় স্ত্রীর শরিফুল ইসলাম (১০) নামে একটি ছেলেও রয়েছে। সে হাফেজিয়া মাদ্রাসায় লেখা পড়া করে । প্রথম ও দ্বিতীয় স্ত্রী ইমান আলীকে ছেড়ে চলে গেছে। সর্বশেষ স্ত্রী জোহরা খাতুনের কোনো সন্তান নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

Archives

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect. Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.